অজ্ঞাতনামা মুভি রিভিউ

অজ্ঞাতনামার চিত্রনাট্য আয়নাবাজির মতই ইউনিক। কিন্তু সিনেমাটোগ্রাফি, শুটিং লোকেশন, সংলাপ - কোনটাই আয়নাবাজির ধারেকাছেও না। আসলে আয়নাবাজির সাথে একে তুলনা করাটা বালখিল্যপ


Proloy Hasan: অজ্ঞাতনামা চমৎকার একটা মুভি, কোন সন্দেহ নাই, কিন্তু মানুষজন একে আয়নাবাজির সাথে তুলনা করেছেন, বিষয়টা যে একান্তই বালখিল্যপনা হয়েছে, সেটা এই মুভিটা দেখার পর বুঝলাম।

অজ্ঞাতনামা হচ্ছে মোর লাইকলি একটা আর্ট ফিল্ম। (পুরাটা সময় মনে হইসে কোন একটা ডকুমেন্টারি দেখতেছি আমি)। অপরদিকে, আয়নাবাজি কোন আর্ট ফিল্ম না।

অজ্ঞাতনামার চিত্রনাট্য আয়নাবাজির মতই ইউনিক। কিন্তু সিনেমাটোগ্রাফি, শুটিং লোকেশন, সংলাপ – কোনটাই আয়নাবাজির ধারেকাছেও না। আসলে আয়নাবাজির সাথে একে তুলনা করাটা বালখিল্যপনা, এটা বুঝতে হবে। দুইটা দুই জাতের মুভি। আয়নাবাজির জন্য আমার শুভ কামনা ছিলো, অজ্ঞাতনামার জন্যও আমার শুভ কামনা রইলো।

করিম যথারীতি অসাধারন অভিনয় করেছে, তবে তার চরিত্রটা আমার কাছে খানিকটা অপ্রয়োজনীয় মনে হয়েছে। আমার কাছে মনে হয়েছে, মোশাররফ করিমের জন্য চরিত্রটা সৃষ্টি করা হয়েছে। চরিত্রের জন্য তাকে নেয়া হয়নি। অনেক সময় পরিচালকেরা এই ধরনের পপুলার ফেনোমেনা তাদের মুভিতে ইউজ করে ভিউয়ারদের ইমোশনাল স্টান্ট দিতে।

একমাত্র বাবু, করিম আর সেলিম বাদে বাকী সবার অভিনয় আদতে অতি অভিনয় মনে হয়েছে। বিশেষ করে, নিপুন আক্তার মেয়েটা অভিনয়ের ’অ’ও জানে না। এতদিন এই সেক্টরে কাজ করেও তার অভিনয়, ফেসিয়াল এক্সপ্রেশন আর ডায়লোগ ডেলিভারি নিতান্তই নতুন-অনভিজ্ঞ শিল্পীদের মতো। বিষয়টা বিরক্তিকর। ইনফ্যাক্ট তার চরিত্রটাও অপ্রয়োজনীয় মনে হয়েছে। ’ফরহাদ’ কিংবা ’বিউটি’ চরিত্রদুটো না থাকলে কাহিনীর কোন ব্যতয় হতো না।

এই মুভিতে যদি অভিনয়ের জন্য কেউ পুরস্কার পেয়ে থাকে, তবে সেটা যাবে নির্ঘাত ফজলুর রহমান বাবুর ঝুলিতে। মুভির মাঝের অংশটুকুতে পুত্রশোকে কাতর পিতার ভূমিকায় তিনি এমন ভাবে কেদেঁছেন, সেটা দেখে রীতিমতো স্তম্ভিত হয়ে যেতে হয়।

এই মুভি ইমপ্রেস বানাইসে বিভিন্ন ফিল্ম ফ্যাস্টিভ্যালের জন্য, দেশের লোকদের ইমপ্রেস করার জন্য না। এই কারনেই তারা সচেতনভাবেই এই মুভির মার্কেটিং করে নাই। নাইলে আয়নাবাজির চাইতে ১০ গুন বেশী মার্কেটিং করার সামর্থ্য তাদের ছিলো।

মুভির দুয়েকটা সংলাপ বেশ হাস্যরসের যোগান দিয়েছে। সেরা ডায়লোগ ছিলোঃ “আপনার পোলার খৎনার দায়িত্ব কি বাংলাদেশ পুলিশের নাকি?

তবে অজ্ঞাতনামার যে জিনিসটা সবচাইতে বিরক্ত লেগেছে সেটা হচ্ছে, গালাগালির অবাধ ব্যবহার। এই গালাগালগুলো সেন্সরবোর্ড না কেটেই রিলিজ দিয়েছে, একটা গালিও কাটে নাই। ছোট ভাই নিয়ে দেখতে বসে বিব্রত হয়েছি। কারন আমি জানতাম, বাংলাদেশের একটা মুভিতে কথায় কথায় বাপ মা তুলে গালাগাল করলে অবশ্যই সেগুলো সেন্সর করা হবে। কিন্তু এই মুভিতে করা হয় নাই। বিষয়টি আপত্তিকর ও দুঃখজনক।

স্পয়লার এলার্টঃ যা হোক, একটা বিষয় জানতে চাচ্ছি, সেটা হলো, কাষ্টমসে কেউ লাশ রিসিভ করতে গেলে কি সত্যিই লাশের চেহারা না দেখিয়েই তার পরিজনদের হাতে তুলে দেয়া হয়? লাশের চেহারা সনাক্ত না করে লাশ “গছিয়ে” দেওয়াটাও কোন অফিসিয়াল প্রোটোকলের ভেতর পড়ে না। এইটা নিয়ে কেউ হয়রানির মামল করতেই পারে কাষ্টমস কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। আমার ধারনা, ”চেহারা না দেখিয়ে” (যেমনঃ লাশের ছবি) লাশ দেবার নিয়ম নেই, যারা এটা করে তারা নিয়ম ভেঙ্গেই করে। বিদেশী ডেথ সার্টিফিকেটে লাশের একাধিক ছবি থাকে। ছবিগুলো পোষ্ট মোর্টেমের সময় তোলা হয়। ডেথ সার্টিফিকেটে লাশের ছবি না সংযুক্ত থাকলে তারা লিখিত অভিযোগ করতে পারে, এবং আমার ধারনা সংশ্লিষ্ট দেশের কর্তৃপক্ষ সেটা দিতে বাধ্য। কারন যেহেতু কফিন খোলা যাচ্ছে না, সেহেতু ছবি দিতে তারা বাধ্য।

What's Your Reaction?

লল লল
0
লল
আজাইরা আজাইরা
0
আজাইরা
চায়ের দাওয়াত চায়ের দাওয়াত
0
চায়ের দাওয়াত
জট্টিল মামা জট্টিল জট্টিল মামা জট্টিল
0
জট্টিল মামা জট্টিল
এ কেমন বিচার? এ কেমন বিচার?
0
এ কেমন বিচার?
কস্কি মমিন! কস্কি মমিন!
0
কস্কি মমিন!
কষ্ট পাইছি কষ্ট পাইছি
0
কষ্ট পাইছি
মাইরালা মাইরালা
0
মাইরালা
ভালবাসা নাও ভালবাসা নাও
0
ভালবাসা নাও

Comments 0

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অজ্ঞাতনামা মুভি রিভিউ

log in

Become a part of our community!

reset password

Back to
log in
Choose A Format
Personality quiz
Series of questions that intends to reveal something about the personality
Trivia quiz
Series of questions with right and wrong answers that intends to check knowledge
Poll
Voting to make decisions or determine opinions
Story
Formatted Text with Embeds and Visuals
List
The Classic Internet Listicles