মানব চিড়িয়াখানা

ছুটির দিনে আমাদের অন্যতম আকর্ষণীয় এক জায়গা হলো চিড়িয়াখানা। নানা ধরণের পশুপাখিতে ভরপুর এ জায়গায় গেলে বন্য প্রাণীদের দৈহিক গড়ন, চলাফেরা, জীবন-যাপন পদ্ধতি ইত্যাদি বিভিন


মানব চিড়িয়াখানাঃ মানবতার এক চরম অবমাননার ইতিহাস !
#চিত্রঃ ১৯৫৮ সালে বেলজিয়ামের রাজধানী #ব্রাসেলস থেকে তোলা ছবি। ‘#কালো’ বলেই তাকে রাখা হয়েছিলো #চিড়িয়াখানায়। সেখানে তাকে খাবার দিচ্ছে এক ‘#সাদা’ চামড়ার মানুষ। কিন্তু তার #মনটা কি সাদা?

ছুটির দিনে আমাদের অন্যতম আকর্ষণীয় এক জায়গা হলো চিড়িয়াখানা। নানা ধরণের পশুপাখিতে ভরপুর এ জায়গায় গেলে বন্য প্রাণীদের দৈহিক গড়ন, চলাফেরা, জীবন-যাপন পদ্ধতি ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে মানুষ জানতে পারে। কিন্তু ধরুন, ভিনগ্রহের কোনো প্রাণী অর্থাৎ #এলিয়েনদের একটি দল এসে পৃথিবী থেকে কয়েকজন মানুষকে ধরে নিয়ে গেলো। তাদের গ্রহে যেহেতু এই #মানুষগুলোনিজেরাই এক একজন #এলিয়েন, তাই তাদেরকে প্রদর্শনের জন্য কোনো চিড়িয়াখানায় রাখলো। সেখানে দিনভর নানা দর্শনার্থী আসে, েমানুষগুলোর দিক এটা-সেটা ছুঁড়ে িমারে, ভিনগ্রহের ভাষায় তাদের উদ্দেশ্যে নানা রকম মন্তব্য করে এবং এমনই আরো অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটাতে শুরু করলো। তখন কেমন লাগবে? একবার কল্পনা করুন তো।

কোনো এলিয়েন নয়, বরং মানুষের #স্বজাতিই এককালে তাকে খাঁচায় বন্দী করে রাখতো বিভিন্ন #চিড়িয়াখানায় দেখানোর জন্য, তাহলে কি সেটা বিশ্বাসয়োগ্য? অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, এককালে এই পৃথিবীতে আসলেই এমন চিড়িয়াখানা ছিলো যেখানে বন্দী রাখা হতো নিগৃহীত আর নিপীড়িতদের ! ছবিটি দেখুন।

‘মানব চিড়িয়াখানা (Human Zoo)’ কিংবা ‘নৃ-তত্ত্ব বিষয়ক প্রদর্শনী (Ethnological Exposition)’ নামক এ অমানবিক, বর্ণবাদী, বৈষম্যমূলক প্রথার প্রচলন ছিলো উনিশ, বিশ ও একুশ শতাব্দীর সময়টি জুড়ে। সেসব জায়গায় মূলত বিশ্বের বিভিন্ন জায়গা থেকে আনা #আদিবাসীদের দেখানো হতো। পাশ্চাত্য সভ্যতার #ইউরোপীয়দের তুলনায় অন্যান্য অ-ইউরোপীয়দের (কিংবা কোনো কোনো ক্ষেত্রে ইউরোপীয়দের বেলাতেও) জীবনযাপন পদ্ধতি কতটা #আদিম, কতটা অনুন্নত তা বোঝাতেই এসব #প্রদর্শনীর আয়োজন করা হতো।
♦এমন মানব চিড়িয়াখানা ঠিক কবে থেকে চালু হয়েছিলো তা সুনির্দিষ্ট করে বলা মুশকিল। তবে মেক্সিকোর #টেনোকটিট্‌লান (Tenochtitlan) এর নবম শাসক দ্বিতীয় #মক্টেজুমার (রাজত্বকাল ১৫০২-১৫২০ খ্রিষ্টাব্দ) একটি চিড়িয়াখানার কথা জানা যায় যেখানে নানা রকম পশুপাখির পাশাপাশি #বামন, #আলবিনো এবং #কুঁজোদেরওদেখানো হতো। #রেনেসাঁ যুগে ইতালির #মেদিচি পরিবারও এর সাথে যুক্ত ছিলো। যেমন- ষোড়শ শতাব্দীর দিকে কার্ডিনাল #হিপোলাইটাস মেদিচির সংগ্রহে বিভিন্ন ধরণের জন্তু-জানোয়ারের পাশাপাশি বিভিন্ন #জাতিগোষ্ঠীর মানুষও ছিলো! এদের মাঝে ছিলো #তুর্কী, #আফ্রিকান, #মুর, #ভারতীয় ইত্যাদি নানা জাতির মানুষ।

What's Your Reaction?

লল লল
0
লল
আজাইরা আজাইরা
0
আজাইরা
চায়ের দাওয়াত চায়ের দাওয়াত
0
চায়ের দাওয়াত
জট্টিল মামা জট্টিল জট্টিল মামা জট্টিল
0
জট্টিল মামা জট্টিল
এ কেমন বিচার? এ কেমন বিচার?
0
এ কেমন বিচার?
কস্কি মমিন! কস্কি মমিন!
0
কস্কি মমিন!
কষ্ট পাইছি কষ্ট পাইছি
0
কষ্ট পাইছি
মাইরালা মাইরালা
0
মাইরালা
ভালবাসা নাও ভালবাসা নাও
0
ভালবাসা নাও

Comments 0

Your email address will not be published. Required fields are marked *

মানব চিড়িয়াখানা

log in

Become a part of our community!

reset password

Back to
log in
Choose A Format
Personality quiz
Series of questions that intends to reveal something about the personality
Trivia quiz
Series of questions with right and wrong answers that intends to check knowledge
Poll
Voting to make decisions or determine opinions
Story
Formatted Text with Embeds and Visuals
List
The Classic Internet Listicles